জাতীয় হকি কমিটিতে খুনি ও স্বাধীনতা বিরোধীরা

197

অাকাশ জাতীয় ডেস্ক:

বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী কমিটিতে স্থান পেয়েছেন খুনি ও স্বাধীনতা বিরোধীরা। ২০০০ সালের ১৪ই আগস্ট, পুরান ঢাকার আরমানিটোলা সাক্ষী হয় অত্যন্ত নিন্দনীয় ও কলঙ্কিত একটি ঘটনার। পাকিস্তানের সাবেক গভর্নর ও স্বাধীনতা বিরোধী মোনায়েম খানের মেয়ের জামাই জাহাঙ্গীর আদেলের বাড়িতে সদর্পে ওড়ানো হয় পাকিস্তানের পতাকা।

স্বাধীন দেশে পাকিস্তানি পতাকা ওড়ানোর প্রতিবাদ করায় নির্মমভাবে খুন হন আওয়ামী লীগ নেতা, চলচ্চিত্র প্রযোজক ও লেখক কামাল হোসেন। নিজ বাসার সামনেই সন্ত্রাসীদের গুলিতে ঝাঁজরা হয় ফুটবলার ও ক্রীড়া সংগঠক হিসেবেও জনপ্রিয়তা পাওয়া কামালের বুক।

হত্যাকান্ডে দায়ে গ্রেপ্তার হন জাহাঙ্গীর আদেলের দুই ছেলে জোবায়ের ও তারেক আহমেদ আদেল। সাজা পেলেও খালাস পান এই প্রভাবশালীরা, সেই তারেক আদেল এখন হকি ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য। জাহাঙ্গীর আদেলের আরেক ছেলে সাজেদ আহমেদ আদেল কমিটির সহ-সভাপতি। হকি কমিটিতে খুনিদের অন্তর্ভুক্তিতে ক্ষোভ জানিয়েছে নিহত কামালের পরিবার।

তবে, মোনায়েম খানের অপরাধের শাস্তি কেন পাবে তার নাতিরা, এমন প্রশ্ন তুলে খুনের ঘটনায় তাদের সম্পৃক্ততা নেই বলে আদেল পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক কৃতী খেলোয়াড় প্রতাপ শংকর হাজরা।