জলবায়ু উদ্বাস্তুদের তহবিলে আরও বৈশ্বিক সহায়তা প্রয়োজন

28

আকাশ জাতীয় ডেস্ক:  

জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর অভিযোজনে, বিশেষ করে উদ্বাস্তুদের জন্য তহবিল বাড়াতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও জি-২০ এর কাছে জোরালো সমর্থন চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ‘এফ-২০ ক্লাইমেট সলিউশন উইক’ এর ‘রেজিলেন্স অ্যান্ড রিকভারি: হাইলাইটিং সলিউশন ফর দ্য জি-২০ অন ক্লাইমেট অ্যান্ড সাসটেইনাবিলিটি’ শীর্ষক এক উচ্চ পর‌্যায়ের ভার্চ্যুয়াল সভায় এ আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

এফ-২০ এবং কিং খালেদ ফাউন্ডেশন যৌথভাবে এই সপ্তাহের আয়োজন করে।

ভার্চ্যুয়াল সভায় শেখ হাসিনা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর জন্য অভিযোজন তহবিল বৃদ্ধি করতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এবং জি-২০-এর কাছ থেকে শক্তিশালী সমর্থন কামনা করছি।

তিনি বলেন, বাস্তুচ্যুত অথবা জলবায়ু শরণার্থী ইস্যুতে বৈশ্বিক সমর্থন যোগাতে জি-২০ কে বৃহত্তর দায়িত্ব নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। আমরা জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত নিরীহ মানুষকে কীভাবে সামাল দিতে পারবো তা ব্যাপকভাবে নির্ভর করছে সবার শান্তি ও নিরাপত্তার ওপর।

সভায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের বৃহত্তর সহযোগিতা, জলবায়ু পরিবর্তনের নেতিবাচক প্রভাব সামাল দিতে শক্তিশালী ও গ্রিন মেকানিজম এবং আপহোল্ড সাসটেইনেবিলিটিসহ তিনটি প্রস্তাবও দেন প্রধানমন্ত্রী।

বাংলাদেশের আশ্রয়ে থাকা রোহিঙ্গাদের কারণে পরিবেশ ও প্রকৃতির মারাত্মক ক্ষতির কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, মিয়ানমার থেকে বিতাড়িত ১১ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। তাদের কারণে প্রকৃতি ও পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। বাংলাদেশের চেয়ে এ পরিস্থিতি সম্পর্কে কেউ ভালো জানে না।

অনুষ্ঠানের অন্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এফ-২০ কো-চেয়ার প্রিন্সেস বেসমা বিনতে বদর, কিং খালিদ ফাউন্ডেশন এবং এফ-২০ এর সভাপতি ক্লাউস মাইক।